মালয়েশিয়া বিদেশী কর্মীদের টিকা না দিলে নিয়োগকর্তার জেল

Spread the love

বিদেশি কর্মীদের করোনা ভাইরাসের টিকা বাধ্যতামূলক করেছে মালয়েশিয়া সরকার। যে সকল নিয়োগকর্তা তাদের বিদেশী কর্মীদের টিকা প্রদানে ব্যর্থ হবেন, সে সব নিয়োগকর্তার বিরুদ্ধে জেল জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে কড়া নির্দেশনা জারি করেছে দেশটির সরকার।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান ভার্চুয়াল এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন।

মন্ত্রী জানান, দেশটিতে বিভিন্ন কারখানার নিয়োগকর্তারা কর্মীদের জন্য যে আবাসনের ব্যবস্থা রেখেছে তাতে দেখা গেছে অনেক আবাসনস্থল কোভিড -১৯ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে সেই সব নিয়োগকর্তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া ইমিগ্রেশন ডিটেনশন সেন্টারেও কোভিড-১৯ মহামারী ধরা পড়েছে যেখানে অনথিভুক্ত অভিবাসীদের আটকে রাখা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, জাতীয় টিকা দান কর্মসূচী বাস্তবায়িত হওয়ার পর সরকারি হাসপাতালে বিদেশী কর্মীদের টিকা দেওয়ার জন্য আমরা সকল নিয়োগকর্তাদের পরামর্শ দিয়েছি। বিদেশী কর্মীদের ন্যূনতম আবাসন ও সুযোগ-সুবিধা (সংশোধনী) আইন ২০১৯ এর ৪৪৬ ধারা লঙ্ঘনের অভিযোগে সেসব নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে তিন বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড এবং সর্বোচ্চ ২০০,০০০ রিঙ্গিত জরিমানা হতে পারে।

এছাড়াও সরকার প্রাথমিকভাবে নিয়োগকর্তাদের অনুরোধ করেছিল তাদের বিদেশী শ্রমিকদের সকল টিকা দানের খরচ বহন করতে, কিন্তু মন্ত্রিসভা পরে দেশের স্থানীয় নাগরিকের জন্য বিনামূল্যে কোভিড-১৯ টিকা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেন পাশাপাশি বিদেশী কর্মীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। সেই সাথে কূটনীতিবিদ, বিদেশী শিক্ষার্থী, বিদেশী স্বামী-স্ত্রী এবং সন্তান, জাতিসংঘের শরণার্থী কার্ড ধারীদের জন্য এই বিনামূল্যে করোনা টিকা প্রদান করা হবে।

বর্তমানে দেশটিতে প্রায় ১.৭ মিলিয়ন বৈধ বিদেশী কর্মী রয়েছে।

Leave a Reply